December 1, 2019

দেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কৃষিশিক্ষা প্রাধান্য বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

দেশবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ

দেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কৃষিশিক্ষা প্রাধান্য বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে 

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

 

দেশের সকল কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কৃষিশিক্ষা প্রাধান্য বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ/সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ শনিবার সকাল ১১টায় সারাদেশে একযোগে ৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যে উচ্চশিক্ষায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কষ্ট লাঘব এবং আর্থিক অপচয় রোধকল্পে দেশে প্রথমবারের মতো গুচ্ছ/সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অত্যন্ত সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গুচ্ছ পদ্ধতির এই পরীক্ষার মাধ্যমে ৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য একক মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) নেতৃত্বে গুচ্ছ পদ্ধতিতে সিভাসু ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষা পরিদর্শন করেন মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, সিভাসু’র উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, গুচ্ছ পদ্ধতির লিডিং বিশ্ববিদ্যালয় বাকৃবি’র প্রফেসর ড. মো. তাজ উদ্দিন (টীম লিডার), প্রফেসর ড. মো. আব্দুল আলীম, প্রফেসর ড. মো. রেজাউল করিম, সিভাসু’র প্রফেসর ড. এম. নূরুল আবছার খান, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম ও প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথ।

পরীক্ষা শেষে ইউজিসি’র সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, “এই প্রথম বারের মতো অত্যন্ত সুন্দর, সুশৃঙ্খল ও সফলভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহে দেশে এই প্রথম বারের মতো গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো। এটি নি:সন্দেহে বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে। আগামীতে প্রযুক্তিগত সুবিধা ব্যবহার করে আরো সহজ ও সুন্দরভাবে গুচ্ছ পদ্ধতির এই পরীক্ষা গ্রহণ করা যাবে বলে তিনি আশাব্যক্ত করেন।”

শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সিভাসু’র উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনে সহযোগিতার জন্য তিনি শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে ধন্যবাদ জানান।