December 18, 2016

Óª¡ÓºçÓªƒÓºçÓª░Óª┐Óª¿Óª¥Óª░Óª┐ Óª¼Óª┐ÓªÂÓºìÓª¼Óª¼Óª┐ÓªªÓºìÓª»Óª¥Óª▓ÓºƒÓºç ÔÇ£ÓªçÓªñÓª┐Óª╣Óª¥Óª© ÓªòÓªÑÓª¥ ÓªòÓºƒÔÇØ ÓªÂÓºÇÓª░ÓºìÓªÀÓªò ÓªåÓª▓ÓºïÓªòÓªÜÓª┐ÓªñÓºìÓª░ Óª¬ÓºìÓª░ÓªªÓª░ÓºìÓªÂÓª¿ÓºÇÓª░ ÓªëÓªªÓºìÓª¼ÓºïÓªºÓª¿

ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে “ইতিহাস কথা কয়” শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাস জানার অনবদ্য আয়োজন-প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ

 

 

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে “ইতিহাস কথা কয়” শীর্ষক তিনদিন ব্যাপী এক আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। আজ রবিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে মঙ্গলপ্রদীপ জ্বালিয়ে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউএসটিসি’র উপাচার্য প্রফেসর প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম, প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথ, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. বিবেক চন্দ্র সূত্রধর, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা হলের প্রভোস্ট ড. আজিজুন্নেছা, লাইব্রেরীয়ান মো. হাবিবুর রহমান, শারীরিক শিক্ষা পরিচালক মো. মুজিবুর রহমান, সহকারী প্রক্টর ফাহাদ বিন কাদের। প্রদর্শনীর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন “দেশ একটি সম্মিলিত উচ্চারণ” এর সদস্য সচিব সাহাবউদ্দিন মজুমদার।

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর অতিথিরা আলোকচিত্র প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন। এ সময় উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেন, বিজয়ের মাসে এ ধরণের আয়োজন অত্যন্ত সময়োপযোগী ও অনবদ্য। এ প্রদর্শনীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী ও চট্টগ্রামবাসী বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাস সম্বন্ধে জানার সুযোগ পাবেন। বিশেষ করে স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রাক্কালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেরিত স্বাধীনতার ঘোষণা সংক্রান্ত বার্তাটি সম্বন্ধে জানার সুযোগ রয়েছে।

ইউএসটিসি’র উপাচার্য প্রফেসর প্রভাত চন্দ্র বড়ুয়া বলেন, ইতিহাস কথা কয় প্রদর্শনীটা অর্থবহ এবং সময়োপযোগী। স্বাধীন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, শহীদদের আত্নত্যাগ, সম্ভ্রমহানির মর্মন্তুদ কাহিনী, বীরশ্রেষ্ঠ সাতজন শহীদের বীরত্বগাঁথা এবং স্বাধীনতার স্থপতি ও বাংলাদেশের জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন, ত্যাগ, কর্ম এবং ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের পটভূমি প্রদর্শনীকে করেছে অত্যন্ত অনবদ্য ও অনন্য।

প্রদর্শনীতে আলোকচিত্র সংগ্রাহক সাহাবউদ্দিন মজুমদারের সংগৃহিত ৬৪০টি দুর্লভ ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে। এটি তাঁর ৪১১তম প্রদর্শনী। প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া ছবির মধ্যে রয়েছে-

ভারত অধ্যুষিত এলাকায় ব্রিটিশ শাসন, শোষণ, অত্যাচার, নির্যাতন, ভারতবাসীর প্রতিবাদ আন্দোলন (১৭৫৭-১৯৪৭), ছবির সংখ্যা ১৮০টি।

দ্বিজাতিতত্ত্বের ভিত্তিতে পাকিস্তানের জন্ম, পশ্চিমা শাসক গোষ্ঠী কর্তৃক পূর্ব বাংলার মানুষের উপর অত্যাচার, নির্যাতন, শাসন, শোষণ এবং বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবের নেতৃত্বে ২৪ বছরের আন্দোলন সংগ্রাম (১৯৪৭-১৯৭০), ছবির সংখ্যা ২৪০টি।

মহান মুক্তিযুদ্ধ (১৯৭১), ছবির সংখ্যা ২৪০টি।

রাষ্ট্রনায়ক বঙ্গবন্ধু (১৯৭২-৭৫), ছবির সংখ্যা ৮৪টি।

জাতির জনকের মৃত্যু ও ষড়যন্ত্র (১৯৭৫), ছবির সংখ্যা ২৪টি।

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিক সহিংসতা (১৯৭৫-২০১৫), ছবির সংখ্যা ২৪০টি।

বাংলাদেশে জঙ্গী তৎপরতা (১৯৮০-২০১৫), ছবির সংখ্যা ৮৪টি।

তথাকথিত ইসলামের দোহাই দিয়ে হেফাজতের আন্দোলন (২০১৪), ছবির সংখ্যা ৬০টি।

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের নামে পেট্রোল বোমা হামলা (২০১৫-২০১৬), ছবির সংখ্যা ৩৬টি।

প্রদর্শনীতে আগত অতিথিরা এ ধরণের আলোকচিত্র প্রদর্শনী আয়োজনের জন্য সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান। আগামী ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ সন্ধ্যা পর্যন্ত আলোকচিত্র প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।