August 16, 2017

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত

 ‘বাংলাদেশের রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধু এখনো সর্বোতভাবে প্রাসঙ্গিক’

 

একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এখনো সর্বোতভাবে প্রাসঙ্গিক। এতো বছর পরেও এদেশের মানুষ গান, কবিতা, গল্প, উপন্যাস, নাটক ইত্যাদির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে স্বত:স্ফুর্তভাবে তুলে ধরছেন। অর্থাৎ তিনি এখনো প্রাসঙ্গিক। এ ধরনের নজির পৃথিবীর আর কোথাও নেই।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

কবি আবুল মোমেন আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন আপোসহীন নেতা। তাঁর অবিস্মরণীয় নেতৃত্ব মানুষকে উজ্জীবিত করেছিল, বাঙালিকে বীরের জাতিতে রূপান্তরিত করেছিল। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আবহমানকালের ইতিহাস বিকশিত হয়েছে মানবতাবাদকে কেন্দ্র করে। মানুষ মানবতার জয়গান গেয়েছে। এখানে ধর্মীয় গোঁড়ামি ও সংকীর্ণতা ছিল না। অথচ বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নৃশংসভাবে হত্যা করা হলো।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর ড. মো. মাসুদুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কনফারেন্স রুমে সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ফিশারিজ অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নুরুল আবছার খান, ফুড সায়েন্স এ- টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ডা. মো. রায়হান ফারুক, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, অফিসার সমিতির সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, প্রফেসর ড. পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, ডা. আদিত্য চৌধুরী অভি। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রফেসর ড. আশরাফ বিশ্বাস।  

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল ১৫ আগস্ট ২০১৭ইং সকাল ৭:৪৫টায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো ব্যাজ ধারণ, সকাল ৮:০০টায় বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যালে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, ১১.০০টায় বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের ওপর আলোচনা সভা এবং বাদ যোহর খতমে কোরআন ও বিশেষ মোনাজাত। 

উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশের নেতৃত্বে কর্মসূচিসমূহে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বস্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রছাত্রী ও কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।